রবিবার, ০২ মে ২০২১, ০৭:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
রাজধানীতে ছিন্নমূল মানুষের দারপ্রান্তে বিডি সমাচার ফাউন্ডেশন সুন্দরগঞ্জে ছাত্রলীগ নেতা রতনের নিজ অর্থায়নে বিভিন্ন মাদ্রাসায় কুরআন শরীফ বিতরণ ভূমিদস্যু তাহেরের সন্ত্রাসী হামলায় চমেক হাসপাতালের বেডে কাতরাচ্ছে এক অসহায়। রতন সরকারকে অবাঞ্ছিত করার এখতিয়ার রংপুর প্রেসক্লাবের নেই: বিএমএসএফ উল্লাপাড়ায় অনশনরত প্রেমিকার বিয়ে না হলে আত্মহত্যার হুমকি! জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্ম শত বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে ১৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামী যুব লীগ এর প্রস্তুতিমুলক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্ম শত বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে ১৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামী যুব লীগ এর প্রস্তুতিমুলক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত। নড়াইলের জেলা তুলারামপুর সেতুতে ধস, বড় যান চলাচল বন্ধ আশার আলো মহা বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ রহশন আলমের শ্বরন সভা ও দোয়া অনুষ্ঠান। মাদ্রাসা ছাত্রকে হাত বেঁধে ঝুলিয়ে নির্যাতন, শিক্ষক গ্রেপ্তার।

নেতৃত্ব ও মানবিকতায় ‘হিরো অব দ্য ইয়ার’ শেখ হাসিনা

দৈনিক আলোর দিগন্ত
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৭ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৭৬ বার দেখা হয়েছে

নিউজ ডেস্ক –

মহামারি করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) কারণে যখন উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা, জীবন-জীবিকার অনিশ্চিত যাত্রায় বিশ্বজুড়ে সংকটময় পরিস্থিতি তখন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সামনে থেকে প্রশংসনীয় সফল ও দৃঢ়চেতা নেতৃত্ব দিয়েছেন। করোনা পরিস্থিতিতে মানুষের জীবন-জীবিকার চাকা সচল রাখতে একের পর এক সাহসী পদক্ষেপ নিয়েছেন। লকডাউন পরিস্থিতির মধ্যে সরকারের পাশাপাশি আওয়ামী লীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের সহায়তায় জনগণের জীবন ও জীবিকার চাকা সচল রাখতে প্রণোদনা প্যাকেজসহ উদ্দীপনা ও সাহস জুগিয়েছেন। জনগণের মাঝে ত্রাণ সহায়তা নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়তে নেতাকর্মীদের উদ্দীপ্ত করেছেন। তাই করোনাকালে দেশের সীমানা পেরিয়ে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বিভিন্ন সংস্থা ও গণমাধ্যম তার নেতৃত্ব প্রশংসিত হয়েছে। আর এ কারণেই নেতৃত্ব ও মানবিকতার সফল সাহসী আস্থার প্রতীক ‘হিরো অব দ্য ইয়ার’ শেখ হাসিনা।
সরকার পরিচালনার তার দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ টানা তৃতীয় মেয়াদে ক্ষমতাসীন। আওয়ামী লীগ সভাপতি হিসাবে দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনের তিক্ত অভিজ্ঞতা ও দুরদর্শী নেতৃত্বগুণে সামনে থেকে করোনা সংকট ও প্রাকৃতিক দুর্যোগ-সংকটে সবদিক সামলিয়ে আরও একটি সফল বছর অতিবাহিত করলেন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা।

করোনার সংক্রমণ রোধে সীমিত আকারে মুজিবর্ষ পালন
বাংলাদেশে ২০২০ সাল থেকে উদযাপিত হচ্ছে মুজিববর্ষ। ২০২১ সালে উদযাপিত হবে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন আয়োজনে সরকার ও দলের সামনে ভিন্নমাত্রা যোগের হাতছানি। কিন্তু বৈশ্বিক মহামারি করোনার আঘাতে মুজিববর্ষ পালনে ব্যতয় ঘটে। যদিও মুজিববর্ষ চলতি বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। গত বছর মহামারি করোনার সংক্রমণ রোধে জনগণের জীবন-জীবিকার সুরক্ষার নিমিত্তে মানবিক পদক্ষেপ ও সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার লক্ষ্যে জনসমাগমে সবধরনের কর্মসূচি স্থগিত করা হয়। এ কারণে সীমিত পরিসরে ভার্চুয়ালি মুজিববর্ষের কর্মসূচি পালিত হয়। একইভাবে সীমিত পরিসরে দলের দিবসভিত্তিক আলোচনা সভা ও সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড পরিচালনার সিদ্ধান্ত নেন শেখ হাসিনা। ফলে ফেলে আসা বছরে অধিকাংশ সময়ই গণভবনের চার দেয়ালের মাঝে সীমাবদ্ধ থেকেই তার আহ্বান ও নির্দেশনা বাস্তবায়নে ঝাঁপিয়ে পড়েন রাষ্ট্রীয় ফোর্স ও নেতাকর্মীরা। এর মধ্য দিয়ে সাহসী ও মানবিক নেতৃত্বে আরও একটি সফলতার ধাপ অতিক্রম করলেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।
নেতৃত্ব ও মানবিকতায় ‘হিরো অব দ্য ইয়ার’ শেখ হাসিনা

প্রমত্ত পদ্মায় দৃশ্যমান সেতু ও ভাসানচরে রোহিঙ্গা স্থানান্তর
এই করোনাকালেই বঙ্গবন্ধু কন্যার সাহসী নেতৃত্ব স্মরণ করিয়ে দেয় জাতির পিতা বঙ্গববন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ। ‘কেউ দাবায়ে রাখতে পারব না।’ এটাই আবার প্রমাণ করলেন তার কন্যা শেখ হাসিনা। করোনা, আম্পান ও বন্যার ধকল সামলে বিজয়ের মাসে পদ্মাসেতুর শেষ স্প্যানটি বসানোর কাজ শেষ হয়। প্রমত্ত পদ্মায় এখন পুর্ণাঙ্গ সেতু দৃশ্যমান। বাংলাদেশের স্বপ্নই যেন মাথা তুলে দাঁড়িয়ে গেছে পদ্মার বুকে। এছাড়াও সরকারের অন্যান্য মেগাপ্রকল্পগুলোর অগ্রগতি চলমান রয়েছে। অন্যদিকে মানবিক সহায়তা, মানবিক দৃষ্টান্তের আরেকটি সাহসী ও সফল নেতৃত্বের উদাহরণ সৃষ্টি করেছেন কক্সবাজারের শরণার্থী হয়ে থাকা প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গার একটি অংশকে নোয়াখালী ভাসানচরে স্থানান্তরের সফল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার মধ্য দিয়ে।

করোনায় ৫০ লাখ পরিবারকে মানবিক সহায়তা প্রদান
করোনা মহামারিতে গত এক বছরে বিশ্ব ব্যবস্থা টালমাটাল। করোনায় প্রভাবিত বিশ্বের উন্নয়ন, অর্থনীতি এমনকি রাজনৈতিক পরিস্থিতিও। এমন শত প্রতিকূলতার মধ্যেও এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। আর এই এগিয়ে যাওয়ার সামনে থেকে সরকার ও দলের প্রধান হিসেবে সাহসী নেতৃত্ব দেন শেখ হাসিনা। সারাদেশে ৫০ লাখ পরিবারকে আর্থিক সহায়তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী মানবিক সহায়তার নতুন রেকর্ড তৈরি করেন। মানবিক সহায়তা কর্মসূচি চালুর দিন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস বলেন, ‘আপনি যে মানবিক সহায়তা কর্মসূচি উদ্বোধন করতে যাচ্ছেন, আমরা খোঁজ নিয়ে দেখেছি, পৃথিবীর ইতিহাসে এটি বিরল। একসঙ্গে এত মানুষের মানবিক সহায়তা পাওয়া বিরল ঘটনা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পর বাংলাদেশে আপনিই প্রথম এত সংখ্যক মানুষকে একসঙ্গে মানবিক সহায়তা দিলেন।’
নেতৃত্ব ও মানবিকতায় ‘হিরো অব দ্য ইয়ার’ শেখ হাসিনা
এই ৫০ লাখ পরিবারের বাইরেও আরও ৫০ লাখ পরিবারের প্রায় দুই কোটি সদস্য আগে থেকেই সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় ছিল। তারাও ভিজিএফ কার্ড, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, শিক্ষা ভাতা ও প্রতিবন্ধী ভাতা হিসেবে করোনাকালে তাদের সহায়তা অব্যাহত থাকে।

করোনা মোকাবিলায় দৃঢ় পদক্ষেপ গ্রহণ
করোনার ধাক্কা আসার শুরুতেই গণভবনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যনিবাহী সংসদের সভা করে দলীয় নেতাকর্মীদের দিক-নির্দেশনা দেন শেখ হাসিনা। গণভবন বসেই সরকারি দাফতরিক সব কাজের পাশাপাশি নিয়মিত কেন্দ্র থেকে একেবারের তৃণমূল প্রশাসনের খোঁজ রাখার পাশাপাশি প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি। বিভিন্ন সভায় ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলছেন বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের সঙ্গে। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা বিশ্ব সম্প্রদায়কে নিয়ে এক সঙ্গে কাজ করতে বিভিন্ন উদ্যোগ প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখেন। এধারাবাহিকতায় চীনের প্রেসিডেন্ট, ইউরোপীয় দেশসহ বিভিন্ন রাষ্ট্রপ্রধানরা প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দেন ও কথা বলেন।
দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ১৭ মার্চ থেকে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও কোচিং সেন্টার বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। দফায় দফায় বৃদ্ধি করা হয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের মেয়াদ। ওই সময় অনলাইন, টেলিভিশনের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনাসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হয়। এছাড়া করোনার সংক্রমণ রোধে ২৬ মার্চ থেকে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে সরকার। সাধারণ ছুটি কয়েক দফা বাড়ানো হয়। সাধারণ ছুটির সঙ্গে গণপরিবহনও বন্ধ করে সবাইকে ঘরে থাকার আহ্বানের পাশাপাশি স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিধি মেনে চলতে নির

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Alor Diganto
Design & Developed by Freelancer Zone
themesba-lates1749691102