রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ১২:৩৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
করোনা প্রতিরোধে স্বাস্থ্য সেবা ও অক্সিজেন সরবরাহ নিশ্চিত করতে এমপি শামীমের জরুরি সভা করোনা পরিস্থিতি ও সুরক্ষা ব্যবস্থা জানতে সরকারী এবং বেসরকারী হাসপাতালের দুয়ারে (সুজন) লোহাগড়ায় ৩ হাজার ৭শ’৬৫ পিস ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যাবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশনের নতুন সভাপতি মোঃ মনিরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আসাদুজ্জামান নতুন মাদক Eskuf ও বিপুল পরিমাণ গাঁজাসহ গ্রেফতার ৪ লকডাউনে গরিবদের টেক-কেয়ার করবো, নতুন কিছু করবো: অর্থমন্ত্রী মাদকমুক্ত সমাজ গাড়ার দাবীতে মানববন্ধন হাটহাজারীতে ছুরিআঘাতে যুবকের মৃত্যু পাহাড়ে ঝুঁকি নিয়ে বসবাসকারীদের সরিয়ে দিতে প্রশাসনের অভিযান। চাঁপাইনবাবগঞ্জ RAB ক্যাম্পের অভিযানে ১০ কেজি গাঁজাসহ ০২ জন কুখ্যাত গাঁজা ব্যবসায়ী গ্রেফতার।

পঞ্চগড়ে সার্ভার সমস্যা অন্যদিকে প্রত্যয়ন পত্র টাকা নিয়েছে স্কুল কলেজ

দৈনিক আলোর দিগন্ত
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৮ মার্চ, ২০২১
  • ১০০ বার দেখা হয়েছে

নিউজ ডেস্ক –

১০ হাজার টাকা উপবৃত্তি দেওয়ার খবরে পঞ্চগড় জেলা শহরসহ পাঁচ উপজেলার কম্পিউটারের দোকানে ভিড় করেছিলেন শিক্ষার্থীরা। সার্ভার ক্রুটির কারণে অনলাইনে আবেদন করতে না পারায় শিক্ষার্থীরা দিনভর দোকানে বসে অপেক্ষা করেন। তবে আবেদন করতে প্রয়োজন প্রত্যয়নপত্রের জন্য ৫০-১০০ টাকা নিয়েছে স্কুল ও কলেজ।

এদিকে রাতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের নোটিশ বোর্ডে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্র ছাত্রীদের অনুদান প্রদানের অনলাইন আবেদনের সময়সীমা বৃদ্ধি করা হয়েছে। ৯৯ পিডিএফ ফাইলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সহকারী সচিব ফজলুর রহমান স্বাক্ষরিত স্মারকের চিঠিতে বলা হয়েছে উপযুক্ত বিষয়ের পরিপ্রেক্ষিতে কোভিড ১৯ পরিস্থিতি বিবেচনায় প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্র-ছাত্রীদের বিশেষ অনুদান প্রদানের লক্ষ্যে অনলাইনে আবেদনের সময়সীমা ১৫ মার্চ পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে।

জেলা শহরের রিয়াজ উদ্দিন মার্কেট, কদমতলা বাজার, সিনেমা হল রোড, পঞ্চগড়-তেতুঁলিয়া মহাসড়কের পাশের কম্পিউটার দোকানগুলোতে শহর ও গ্রামের মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষার্থীদের দীর্ঘ লাইন দেখা যায়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, একসেবা ডট গভ ডট কম ওয়েবসাইটসহ বিভিন্ন মাধ্যমে খবর পেয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা অনলাইনে আবেদন করতে দোকানগুলোতে ভিড় করেন। গুজব না সঠিক তা কেউ নিশ্চিত করতে না পারলেও এ খবর ছড়িয়ে পড়লে শহরগুলোতে অতিরিক্ত শিক্ষার্থীদের চাপে যানজটের সৃষ্টি হয়।

জেলা শহরের রিয়াজ উদ্দিন মার্কেটের হানিফ কম্পিউটারের মালিক আবু হানিফ জানান, গত এক সপ্তাহ ধরে সার্ভার ত্রুটির সমস্যায় ভুগছি। ছাত্রছাত্রীরা নিবন্ধনের জন্য দোকানে ভিড় করছেন। তারা নিবন্ধনের জন্য একশত করে টাকা ও কাগজপত্র জমা দিয়েছেন।

একই মার্কেটের রনি কম্পিউটারের রশিদুল জানান, নিবন্ধনের শেষ দিন হওয়ায় সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত দোকানে শিক্ষার্থীদের ভিড় ছিল। কিন্তু সার্ভারে ঢুকতেই পারছি না। ফলে কারও নিবন্ধন হয়নি। আমার এখানে দেড়শত শিক্ষার্থী টাকা ও কাগজপত্র জমা দিয়েছে।

স্কুল কলেজের প্রত্যয়নপত্র, নিজের এনআইডি ও বাবা মায়ের এনআইডি এবং নগদ অ্যাপস রয়েছে এমন মোবাইল নম্বর দিয়ে ১০ হাজার টাকার উপবৃত্তির আবেদন করতে হবে বলে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে উল্লেখ করা হয়েছে বলে কম্পিউটার দোকানদারগুলো জানিয়েছেন।

জেলা শহরের উত্তর দর্জিপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির রানী বলেন, আমাদের স্কুলের প্রধান শিক্ষকের নির্দেশে নিবন্ধন করতে এসেছি। নেটওয়ার্ক ও সার্ভার ক্রুটি দেখানোয় আবেদন করতে পারিনি। তারাসহ ৬৫ জন শিক্ষার্থী কাগজপত্র ও টাকা পঞ্চগড় টিচার্স লাইব্রেরি ও কম্পিউটার দোকানে জমা দিয়েছি।

পঞ্চগড় সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী হালিমা আক্তার সম্পা জানান, গত ফেব্রুয়ারি মাসের ২৮ তারিখ আবেদনের শেষ তারিখ ছিল। পরে চলতি মাসের ৭ মার্চ পর্যন্ত আবেদনের সময়সীমা বাড়ানো হয়। কিন্তু বর্ধিত সময়ে আমি অনলাইনে আবেদন করতে পারিনি। এটা সঠিক না ভুয়া এটাও কেউ নিশ্চিত করতে পারেননি।

পঞ্চগড় মকবুলার রহমান সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী সজিবও খবর পেয়ে জেলা শহরের রিয়াজউদ্দিন মার্কেটে নিবন্ধন করতে এসেছেন। বিকাল পর্যন্ত অপেক্ষা করেও নিবন্ধন করতে পারেননি। আবারও সময় বর্ধিত করলে চেষ্টা করবেন বলে জানায় সে।

পঞ্চগড় সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহামুদুল হক জানান, উপবৃত্তির বিষয়ে আমার কাছে কোন চিঠিপত্র আসেনি। তবে আমার ছাত্রীরা অনেকেই আবেদনের জন্য প্রত্যয়নপত্র নিয়েছেন। তবে পঞ্চগড় বিপি সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) জোবায়ের ইসলাম বাদলকে একাধিকবার ফোন করেও পাওয়া যায়নি।

পঞ্চগড় সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মজিবর রহমান জানান, সরকার কিছু নীতিমালার মধ্য দিয়ে উপবৃত্তি দিবেন। গত মাসের ২৮ ফেব্রুয়ারি আবেদনের শেষ তারিখ ছিল। পরে আবারও আবেদনের সময়সীমা ৭ মার্চ পর্যন্ত বৃদ্ধি করেছেন। অনলাইনে আবেদন করতে আমার প্রায় তিন শত শিক্ষার্থী প্রত্যয়নপত্র নিয়েছে।

পঞ্চগড় জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শাহীন আকতার ১০ হাজার টাকার উপবৃত্তি প্রদানের আবেদনের বিষয়ে আমার জানা নেই। এমন কোনও চিঠিও আমার কাছে নেই।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Alor Diganto
Design & Developed by Freelancer Zone
themesba-lates1749691102